Ad

জেস্টাশেনাল ডায়াবেটিস বা গর্ভকালীন মধুমেহের চিকিৎসা কিভাবে হয়?

Published on:

আপনার যদি জেস্টাশেনাল ডায়াবেটিস বা গর্ভকালীন মধুমেহ ধরা পড়ে, তাহলে আপনার অবশ্যভাবে রক্ত শর্করার মাত্রা সঠিক হারে নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে। আপনার চিকিৎসক এই ব্যাপারে আপনাকে একজন অভিজ্ঞ ডায়েটিশিয়ানের সঙ্গে পরামর্শ করতে বলবেন, যিনি আপনাকে একটি সঠিক খাদ্য তালিকা তৈরি করে দেবেন।

আপনার রক্তে শর্করার মাত্রা সঠিকভাবে বজায় রাখতে, আপনার ডায়েটিশিয়ান আপনাকে প্রতিদিন গৃহীত ক্যালোরির পরিমাণ ঠিক করে দেবেন, যা অবশ্যই আপনার বয়স এবং ওজনের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ হবে।

একজন সাধারণ ওজনের মহিলার ক্যালোরির পরিমাণ হওয়া উচিৎ প্রতিদিন ২,২০০ থেকে ২,৫০০ পর্যন্ত। অন্যদিকে, আপনি যদি অতিরিক্ত ওজনের অধিকারী হন তাহলে আপনার ক্যালোরির পরিমাণ হওয়া উচিৎ দিনে ১৮০০।    

আপনার চিকিৎসক আপনাকে কিছু হালকা থেকে ভারি ব্যায়ামের নির্দেশ দিতে পারেন অথবা আপনার সাপ্তাহিক রুটিনে কোনও শারীরিক কসরত করার কথা জানাতে পারেন। আপনাকে সেই অনুসারে এমনভাবে ব্যায়াম এবং খাবারের প্রতি যত্নশীল হতে হবে যাতে আবশ্যিকভাবে আপনার রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণের মধ্যে থাকে। এত কিছু করা সত্ত্বেও যদি আপনার রক্তে শর্করার মাত্রা অনিয়ন্ত্রিত হারে বাড়তে থাকে বা বেশী থাকে তাহলে আপনার চিকিৎসক জেস্টাশেনাল ডায়াবেটিস বা গর্ভকালীন মধুমেহের চিকিৎসার জন্য ওষুধের সাহায্য নিতে জানাবেন।

Disclaimer: Medical Science is an ever evolving field. We strive to keep this page updated. In case you notice any discrepancy in the content, please inform us at [email protected]. You can futher read our Correction Policy here. Never disregard professional medical advice or delay seeking medical treatment because of something you have read on or accessed through this website or it's social media channels. Read our Full Disclaimer Here for further information.

Disclaimer: Medical Science is an ever evolving field. We strive to keep this page updated. In case you notice any discrepancy in the content, please inform us at [email protected]. You can further read our Correction Policy here. Never disregard professional medical advice or delay seeking medical treatment because of something you have read on or accessed through this website or it's social media channels. Read our Full Disclaimer Here for further information.

2,657FansLike
0FollowersFollow
250SubscribersSubscribe

Read More

ফ্যাক্ট চেক: আইএসও প্লাস আয়ুর্বেদিক স্লিমিং অয়েল কি দেহের মেদ মূহুর্তের মধ্যে কমিয়ে দেয়?

Quick Take ভারতের টিভিতে মধ্য রাতের টেলিশপিং বিজ্ঞাপনে আইএসও প্লাস অয়েলের বিজ্ঞাপন দেখানো হয়, যেখানে বলা হয় এটি মুহুর্তের মধ্যে মেদ ঝরিয়ে দেবে। বিজ্ঞাপনে এও...

ফ্যাক্ট চেক: অক্সিজেনের জন্য কর্পূর, জোয়ান, লবঙ্গ, ইউক্যালিপ্টাস অয়েল পুঁটলির কার্যকারিতা

সারমর্ম একগুচ্ছ হোয়াটস অ্যাপ আর ফেসবুক পোস্ট, এদের মধ্যে একজন রাজনীতিবিদ ও ভারতীয় জনতা পার্টির মুখপাত্রও আছেন, যারা দাবী করে কর্পূর, জোয়ান, লবঙ্গ, ইউক্যালিপ্টাস অয়েল...

ফ্যাক্ট চেক – ভিক্স্ ভেপোরাব, কর্পূর, বেবি অয়েল কি পেটের চর্বি কমায়?

সারমর্ম অনেক অনলাইন ভিডিও এবং আলোচনায় দাবী করা হয় পেটে ভিক্স ভেপোরাব মালিশ করলে চর্বি কমে। অনেক বলেন ভিক্স ভেপোরাবে যে কর্পূর আছে তা ম্যাজিকের...

ফ্যাক্ট চেক : ই-কমার্স ওয়েবসাইট চ্যাম্প ফিট একটি ভিডিও দ্বারা দাবি করেছে যে স্টিম দিয়ে করোনাভাইরাসকে আটকানো যাই

সারমর্ম চ্যাম্প.ফিট নামে একটি চ্যানেল ইউটিউবে আপলোড করা একটি ভিডিওতে দাবি করেছে যে স্টিম বা গরম বাষ্প করোনাভাইরাসকে মানব দেহে প্রবেশ করা থেকে আটকাতে সহায়তা...

আনন্দবাজার পত্রিকাতে প্রকাশিত ফেক নিউজ: নুন জলে সারে না কোভিড ১৯

আনন্দবাজার পত্রিকাতে ৫ই জুলাই প্রকাশিত একটি খবরে দাবি করা হয় যে এডিনবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীরা আবিষ্কার করেছেন নুন জলে গার্গল করলেই কোভিড ১৯ সেরে যায় | খবরটি তে কলকাতার ডাক্তার শান্তনু বন্দ্যোপাধ্যায়ের উক্তি ব্যবহার করা হয় যেখানে উনি দাবি করেন 'গার্গল করলে করোনা ভাইরাসের প্রোটিনের আচ্ছাদন সরে গিয়ে ভাইরাস নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়ে' | খবরটি সম্পূর্ণ রূপে মিথ্যা এবং বিপজ্জনক|

কোভিড -১৯ হোম ট্রিটমেন্টের পরামর্শ যুক্ত টাটা হেলথের নামে প্রচার করা হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজটি মিথ্যা এবং বিপজ্জনক

সারমর্ম একটি হোয়াটসঅ্যাপ বার্তা টাটা হেলথের নাম দিয়ে প্রচার করা হচ্ছে । বার্তাটিতে COVID-19 এর তিনটি পর্যায়ের কথা বলা হয়েছে এবং বিভিন্ন সেলফ-মেডিকেশন বা নিজে...

THE HEALTHY INDIAN PROJECT'S E-MAGAZINE:

INDIA'S TRYST WITH ALTERNATIVE MEDICINES DURING COVID-19

Disclaimer: Medical Science is an ever evolving field. We strive to keep this page updated. In case you notice any discrepancy in the content, please inform us at [email protected]. You can futher read our Correction Policy here. Never disregard professional medical advice or delay seeking medical treatment because of something you have read on or accessed through this website or it's social media channels. Read our Full Disclaimer Here for further information.